জানা-অজানা

১৫ ঘণ্টার জন্য পৃথিবীতে আনলেন সন্তানকে…… বিস্তারিত পড়ুন……

১৫ ঘণ্টার জন্য পৃথিবীতে আনলেন সন্তানকে…… বিস্তারিত পড়ুন……

চিকিৎসক জানিয়ে দিয়েছিলেন বাঁচানো যাবে না গর্ভের সন্তানকে। কারণ সন্তানের মস্তিষ্ক হবে অপরিপক্ব। চিকিৎসা বিজ্ঞানের ভাষায় যাকে বলা হয় অ্যানানসেফালি। পরামর্শ ছিলো গর্ভপাত করার। কিন্তু সন্তানকে এক নজর দেখার লোভ সামলাতে পারেননি বাবা-মা দু’জনের কেউই। আর তাই মাত্র ১৫ ঘণ্টা সন্তানকে কাছে পাবার জন্য দশ মাস তাকে গর্ভে ধারণ করলেন মা।

ঘটনাটি ঘটেছে যুক্তরাষ্ট্রের ওকলাহোমায়। অ্যাবে আহের্ন এবং রবার্ট আহের্ন জানালেন তাদের সন্তানের কথা। অ্যাবে গর্ভবতী হয়ে পড়ার পর মেডিক্যাল পরীক্ষায় তারা জানতে পারলেন তাদের সন্তান বেঁচে থাকার মতো শারীরিক সক্ষমতা নিয়ে জন্মাবে না। তাদেরকে পরামর্শ দেয়া হয়েছিলো গর্ভপাত ঘটানোর। কিন্তু সে পথে হাঁটলেন না এ দম্পতি।

স্বাভাবিকভাবেই জন্ম নিলো অ্যাবে-রবার্ট দম্পতির মেয়ে। বাবা-মায়ের সঙ্গে সে কাটালো ১৪ ঘণ্টা ৫৮ মিনিট। এরপরই সে বিদায় নিলো পৃথিবী থেকে।

এ ব্যাপারে অ্যাবে বলেন, আমি আমার মেয়েকে ১৫ ঘণ্টার জন্য কাছে পেয়েছি। যদিও অনেক কষ্ট পেয়েছি, তারপরেও তাকে কাছে পেয়ে আমি খুশি।

তিনি আরো জানান, তাদের সন্তানের অঙ্গ দান করবেন তারা। নিজে বাঁচতে না পারলেও, তাদের সন্তান অন্যদের জীবন বাঁচিয়েছে ভেবে গর্বিত হবেন তারা।

এ ব্যাপারে চিকিৎসক জানান, শরীরে অক্সিজেন স্বল্পতা থাকায় নবজাতকের শরীরের শুধুমাত্র হৃৎপিণ্ড আর ভালব প্রতিস্থাপন করা যাবে।

যুক্তরাষ্ট্রে প্রতি এক হাজার নবজাতকের মধ্যে এক জন অ্যানানসেফালি রোগে আক্রান্ত হয়। অধিকাংশ ক্ষেত্রেই এর ফলাফল হয় গর্ভপাত। কিন্তু ব্যতিক্রমী পদক্ষেপ নিয়ে নিজের ভালোবাসার প্রমাণ দিলো অ্যাবে ও রবার্ট।

'বাসার বাজার করেছেন তো? বাজার করুন চালডালে - সময় বাচাঁন, খরচ বাচাঁন। সেরা দামে সবকিছু মাত্র এক ঘন্টায়।'

Click to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

To Top